অনূপ্রেরণার গল্প, মন খারাপ থাকলে পড়ে নিতে পারেন

অনূপ্রেরণার গল্প, মন খারাপ থাকলে পড়ে নিতে পারেন কখনো ভাগ্যকে জিজ্ঞেস করবেন নাহ, আজ পর্যন্ত সে আপনাকে কি দিয়েছে। বরং প্রশ্ন নিজেকে করুন, যে এখনও পর্যন্ত আপনি জীবনে কি করেছেন?

জীবনে সমস্যা যতই বড় হোক না কেনো, কখনওই হতাশ হবেন নাহ। কারণ, রোদ যতই তীব্র হোক না কেনো, সেটা কখনোই সমুদ্রকে শুকাতে পারবে নাহ!!
আজ আমার খারাপ সময়, কিন্তু কোনো চিন্তা করি নাহ। কারণ, পরিস্থিতি খারাপ দেখে হেরে যাবো তেমন মানুষ আমি নই।
যখন আমি এই পৃথিবীতে এসেছি তখন সবাই হেসেছে, কেবল আমিই কেঁদেছি। আর আমি এমন কাজ করে যাবো যাতে আমার মৃত্যুর পর আমি হাসতে পারি আর পৃথিবী কাঁদবে।
অন্যের কথা ভাবা বন্ধ করুন। কারণ, যার কাছে কিছুই থাকে না, লোক তাকে দেখে হাসে। আর যার কাছে সব কিছু থাকে, এই পৃথিবী তাকে দেখে হিংসা করে।
কিছু লোক তাদের ফেসবুকের ভালো ভালো স্টাটাস আপনাকে দেখাবে, কিন্তু আপনি ওসব না দেখে নিজের জীবনের ভালো স্টাটাস তৈরি করুন।
পাথরের একটাই দূর্বলতা, সে কখনও গলে নাহ। কিন্তু, আবার এটাই হলো পাথরের ভালো গুন যে, সে কখনও বদলে যায় নাহ।
কিছু যায় আসে না, লোকে আমার সম্পর্কে কি ভাবে? কিন্তু, আমি অনেক ভালো, আর এটা আমার মা বলে।
কিছু হলে সমুদ্রের মতো হন, যাতে লোকের ঘাম ছুটে যায় আপনার দূরত্ব মাপতে মাপতে।
পৃথিবীতে সব থেকে বেশি স্বপ্ন নষ্ট করেছে কেবল একটি মাত্র কথা। আর সেটি হলো, (লোকে কি বলবে)।
জীবনে কখনোই কাউকে নিয়ে মজা করবেন নাহ। কারণ আপনি হয়তো জানেন নাহ, সে ভিতরে ভিতরে কোন লড়াইটা লড়ছে।
ধৈর্য রাখুন, সব সমস্যার দিন একদিন পার হয়ে যাবে। আজ যারাই আপনাকে দেখে হাসছে, কাল তারাই আপনাকে হাত তালি দেবে।
জয় নিশ্চিত জেনে তো সবাইই লড়াই করতে পারে। কিন্তু সাহসী তো সে, যে হেরে যাবে জেনেও ময়দান ছেড়ে যায় নাহ।
কারোর বর্তমান দেখে হিংসা করবেন নাহ। কারণ, সময়ের এতো ক্ষমতা যে, সে কয়লাকেও হীরা তৈরি করতে পারে।
ভালো কাজ করতে থাকুন, এতে লোক আপনার প্রসংশা করুক আর না করুক। কারণ, অর্ধেকেরও বেশি লোক যখন ঘুমিয়ে থাকে তখনও সূর্য রোজ ওঠে।
নিজেকে অতীতের মতো তৈরি করুন যাতে, লোক আপনাকে দুইবার ব্যবহার করতে না পারে।
পূর্ণতার ইচ্ছায় মানুষ অনেক কিছু হারিয়ে ফেলে। কিন্তু এরা ভূলে যায়, অর্ধেক চাঁদও অনেক সুন্দর হয়।
উড়তে দাও ধূলোকে, কতোদূর উড়বে? হাওয়া যখনই স্বাধ ছেড়ে দিবে, সে তখনই মাটিতে এসে পরবে।
যে কাল কাল করেছে, সে আফসোস করছে। আর যে আজকের ভরসায় চলা শুরু করেছে, সেই কেবল ইতিহাস লিখবে!!
.
.
চলো বিশ্বাস করলাম- ভাগ্যের সিদ্ধান্ত কখনও বদলানো যায় নাহ। কিন্তু আপনি সিদ্ধান্ত তো নিয়ে দেখুন, কে জানে, হয়তো ভাগ্যই বদলে যাবে।
উইনারের কাছে রেজাল্ট আর লুজারদের কাছে কেবল এক্সকিউজ থাকে।
স্বপ্ন দেখা ও পূর্ণ করার মাঝে কেবল পরিশ্রমের পার্থক্য থাকে।
খুশির ফুল আপনার জীবনেও ফুটে উঠবে। আপনার পরিশ্রমে এই পৃথিবীও বদলে যাবে। চিন্তা করুন সেটা আপনি পেয়ে গেছেন। আর দেখবেন- একদিন আপনি সেটা পেয়ে গেছেন!!

মন খারাপ থাকলে পড়ে নিতে পারেন

 

সময় থাকলে পড়বেন…..আপনারো জীবন পাল্টে যেতে পারে.…….

ভোর রাতে সন্তান জন্ম দিয়ে সকাল বেলা
বিসিএস এর ৩ ঘন্টা লিখিত পরীক্ষা দিয়ে জাতীয়
মেধাবীদের মধ্যে ১১ তম হওয়া মেয়েটির নাম
ছিল– সুপর্না দে।

” বাজারের ছোট্ট পান বিক্রেতার মেয়েটিও
বিসিএস পরীক্ষা দিয়ে একদিন হয়ে যান —
ম্যাজিস্ট্রেট,নাম ছিল– সালমা খাতুন।
” স্টেশনের কাজ করা,, অর্থাৎ কুলির ছেলেটিও
হয়ে যায় প্রশাসনিক কর্মকর্তা,, ছেলেটির নাম ছিল–
সাব্বির রহমান

“” শহরের রিকশাচালক চাচার ছেলেটিও,যাকে
ঈদেও নতুন জামা কিনে দিতে পারতেন না।সেই
ছেলেটিও এ এস পি হন,,বিসিএস এর কল্যানে।

“” পরীক্ষার হলে আমরা সবাই সমান।তখন
পরীক্ষক দেখেন না কে চেয়ারম্যান এর
ছেলে কিংবা কে এমপির মেয়ে।

“” সফল হওয়ার জন্য ভালো ব্যাকগ্রাউন্ড দরকার
হয়না,,দরকার হয় একটা সাহসী মানসিকতার,, অধ্যবসায়
আর সময়ের সঠিক ব্যবহার।

” স্বপ্ন টা সত্যি করা দায়িত্ব কেউ নিবেনা।আপনাকেই
করতে হবে।নিজের গল্প টা নিজেকেই তৈরি
করতে হয়।

“” নেলসন মেন্ডেলা স্যার এর একটা কথা মনে
হচ্ছে “(হয়ে যাওয়ার আগে সবকিছু অসম্ভব)

” আপনি নিজে প্রস্তুতি নিন।শুরু করে দিন।কোন
কাজই সহজ না,সহজ করে নিতে হয়।পরিশ্রম করুন,
লেগে থাকুন।কথা দিচ্ছি,, একদিন আপনিও
অনেকের অনুসরণীয় হয়ে যাবেন।

 

About Jobsjoin 24

Leave a Reply

Your email address will not be published.